Bankim Sardar College

 

more
  •  Teachers Login   |   •  E-Library   |   •  Contact Us

This

is an example of a HTML caption with a link.
ছাত্র ছাত্রীদের কিছু সহায়ক নির্দেশিকা

 

ভর্ত্তি সংক্রান্ত

  • এই কলেজে ভর্ত্তির ক্ষেত্রে কলিকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের নিয়মাবলী প্রযোজ্য এবং নূন্য যোগ্যতা বিশ্ববিদ্যালয়ের দ্বারা নির্ধারিত
  • নূন্যতম যোগ্যতা থাকলেই ভর্ত্তি হওয়াকে নিশ্চিত করে না।
  • ছাত্র ছাত্রী ভর্ত্তি সম্পূর্ণ ভাবে মেরিট লিস্ট বা মেধা তালিকা দ্বারা নির্ধারিত হবে  
  • এই মেরিট লিস্ট থেকে প্রথম লিস্ট, দ্বিতীয় লিস্ট তৃতীয় লিস্ট প্রকাশ করা হবে যতক্ষন আসন সংখ্যা অবশিষ্ট থাকবে
  • কোন বিষয়েই বিশ্ববিদ্যালয় দ্বারা নির্ধারিত আসন সংখ্যার অতিরিক্ত ভর্ত্তি নেওয়া কলেজ র্ত্তৃরপক্ষের পক্ষে সম্ভব নয়
  • ফর্ম সংগ্রহ জমা দেওয়ার  নির্দিষ্ট তারিখের পর কলেজ কতৃপক্ষের পক্ষে ফর্ম দেওয়া বা জমা নেওয়া সম্ভব নয়  
  • বিশ্ববিদ্যালয় যদি ভর্ত্তির সময় সীমা এবং আসন সংখ্যা বৃদ্ধি করে তবেই পুনরায় ফর্ম দেওয়া বা জমা নেওয়া সম্ভব হবে  
  • উচ্চমাধ্যমিকের ফল প্রকাশের এক দিন পর কলেজ ফিস ১০০ টাকার বিনিময়ে ফর্ম সহ প্রস্পেক্টাস দেবে
  • এই ফর্ম পূরণ করে উপযুক্ত নথি সমেত কলেজ অফিসে জমা দিতে হবে আগামী ১৫ই জুন বেলা তিনটের মধ্যে ।
  • ফর্ম জমা দেওয়ার সময় যে সমস্ত নথি আবশ্যিক ভাবে জমা দিতে হবে তা হল -  
    • মাধ্যমিকের মার্কশিট (ফটোকপি)  
    • উচ্চমাধ্যমিকের মার্কশিট (ফটোকপি),
    • SC /ST /OBC প্রমাণ পত্র (ফটোকপি)        
    • মাধ্যমিকের আডমিট (ফটোকপি)  
    • দুই কপি রঙিন ফটো                            
    • ক্যারেক্টার সার্টিফিকেট
    • ট্রান্সফার সার্টিফিকেট (আসল)                 
    • মাইগ্রেসান সার্টিফিকেট (আসল)  
  • মেরিট লিস্ট প্রকাশের দিন আগামী ১৯শে জুন বেলা তিনটের মধ্যে  ।
  • কলেজ নোটিশ বোর্ড এবং ওয়েবসাইটে www.bankimsardarcollege.org এই মেরিট লিস্ট দেখা যাবে
  • মেরিটলিস্টে যে সকল ছাত্র ছাত্রীর নাম প্রকাশ পাবে তাদেরকে প্রথমে অরিজিনাল সকল নথি দেখিয়ে ফর্ম ভেরিফিকেসন করিয়ে অনুমোদন অর্জন করতে হবে 
  • Hons এ ভর্তির ক্ষেত্রে বিভাগীয় অনুমোদন থাকা আবশ্যিক – এই অনুমোদন অর্জনের তারিখ
    • রাষ্ট্রবিজ্ঞান অনার্স               - জুন ২০, বৃহস্পতিবার বেলা ১০ টা থেকে ২।৩০ পযর্ন্ত    
    • ইতিহাস অনার্স                  - জুন ২১, শুক্রুবার বেলা ১০ টা থেকে ২।৩০ পযর্ন্ত  
    • সংস্কৃত অনার্স                   - জুন ২২,  শনিবার বেলা ১০ টা থেকে ২।৩০ পযর্ন্ত
    • বাংলা অনার্স                     - জুন ২৪, সোমবার বেলা ১০ টা থেকে ২।৩০ পযর্ন্ত
    • কর্মাস ও বিজ্ঞান অনার্স        - জুন ২৫, মঙ্গলবার বেলা ১০ টা থেকে ২।৩০ পযর্ন্ত
  • Gen ভর্তির ক্ষেত্রে  অনুমোদন কলেজে উপস্থিত যে কোন শিক্ষক–শিক্ষিকা দ্বারা হতে পারে
    • বিএ, বিএসসি, বিকম          - জুন ২৪, জুন  ২৫, জুন  ২৬

পঞ্চায়েত নির্বাচনের কারণে ২৭শে জুন থেকে কলেজ ভবন জেলা প্রশাসন অধিগ্রহন করে নেবেন এই কারনে এই  ভর্ত্তির প্রক্রিয়ায় আগ্রহী সকল ছাত্র ছাত্রী কে ২৬শে জুনের মধ্যে তাদের ফর্ম  ভেরিফিকেসন করিয়ে নিতে  অনুরোধ করা হচ্ছে এই সময়ের মধ্যে যদি সকল আসন  পূর্ণ না হয় তবেই একমাত্র পঞ্চায়েত নির্বাচনের পর পুনরায় ভর্ত্তি প্রক্রিয়া শুরু হবে    

  • উল্লিখিত অনুমোদন অর্জনের পর কলেজ Cash Counter থেকে মাইনে জমা দেওয়ার Fees Receipt সংগ্রহ করতে হবে
  • এই Fees Receipt নিয়ে স্থানীয় Bank of Baroda ( ক্যানিং ব্রাঞ্চ ) গিয়ে টাকা জমা দিতে হবে এবং টাকা জমা দেওয়ার পর ব্যাঙ্কের স্ট্যাম্প সম্বলিত Fees Receipt  এবং ভর্ত্তির  ফর্ম নিয়ে এসে কলেজে জমা দিয়ে Students ID নিতে হবে
  • ব্যাঙ্কে টাকা জমা দেওয়ার তারিখ জানানো হবে ভর্ত্তির ফর্ম ভেরিফিকেসনের সময়

 

 

 

সাবজেক্ট কম্বিনেসন সংক্রান্ত

বিএ অনার্স কোর্সে কোন ছাত্র বা ছাত্রী কোন বিষয়ে জেনারেল নিতে পারবে                                                                 

(১) বাংলায় অনার্স নিলে বাংলা, এডুকেশন, দর্শন ও ফিসিকাল এডুকেশন বাদে আর অন্য সকল বিষয়  নিতে পারবে

(১) সংস্কৃত বা ইতিহাস (২) রাস্ট্রবিজ্ঞান বা অর্থনীতি বা ইংরেজি

 (২) ইতিহাসে অনার্স নিলে ইতিহাস, দর্শনএডুকেশন, ও ফিসিকাল এডুকেশন বাদে আর অন্য সকল বিষয়  নিতে পারবে

(১) সংস্কৃত বা বাংলা (২) রাস্ট্রবিজ্ঞান বা অর্থনীতি বা ইংরেজি

 (৩) রাষ্ট্রবিজ্ঞানে অনার্স   নিলে রাষ্ট্রবিজ্ঞান, দর্শন, এডুকেশন, ফিসিকাল এডুকেশন বাদে আর অন্য সকল বিষয়  নিতে পারবে

(১) সংস্কৃত বা ইতিহাস বা বাংলা (২) অর্থনীতি বা ইংরেজি

 (৪) সংস্কৃতে অনার্স  নিলে সংস্কৃত, দর্শন, এডুকেশন, ও ফিসিকাল এডুকেশন বাদে আর অন্য সকল বিষয়  নিতে পারবে

(১)বাংলা বা ইতিহাস (২) রাস্ট্রবিজ্ঞান বা অর্থনীতি বা ইংরেজি

 

এই বছর ইংরেজি এডুকেশন ও অঙ্কে অনার্স কোর্স চালু ক ররার জন্যে কলেজ হতে পারে ।

 

বিএ জেনারেল কোর্সে কোন ছাত্র বা ছাত্রী কোন বিষয়ে জেনারেল নিতে পারবে    

(১) বাংলা নিলে ইতিহাস ও সংস্কৃত বাদে আর অন্য সকল বিষয়  নিতে পারবে

(২) ইতিহাস নিলে বাংলা ও সংস্কৃত বাদে আর অন্য সকল বিষয়  নিতে পারবে

(৩) রাষ্ট্রবিজ্ঞান নিলে ইংরেজি ও অর্থশাস্ত্র বাদে আর অন্য সকল বিষয়  নিতে পারবে

(৪) সংস্কৃত নিলে বাংলা ও ইতিহাস বাদে আর অন্য সকল বিষয়  নিতে পারবে

(৫) এডুকেশন নিলে ফিসিকাল এডুকেশন ও দর্শন বাদে আর অন্য সকল বিষয়  নিতে পারবে

(৬) ফিসিকাল এডুকেশন নিলে দর্শন ও এডুকেশন বাদে আর অন্য সকল বিষয়  নিতে পারবে

(৭) অর্থশাস্ত্র নিলে ইংরেজি ও রাষ্ট্রবিজ্ঞান বাদে আর অন্য সকল বিষয়  নিতে পারবে

(৮) ইংরেজি নিলে অর্থশাস্ত্র  ও রাষ্ট্রবিজ্ঞান বাদে  আর অন্য সকল বিষয়  নিতে পারবে

(৯) দর্শন নিলে এডুকেশন ও ফিসিকাল এডুকেশন বাদে  আর অন্য সকল বিষয়  নিতে পারবে

ফিসিকাল এডুকেশন নিলে এডুকেশন নিতে পারবে না

কাজের বাজারের জন্যে প্রস্তুতি সংক্রান্ত

এই বিষয়ে কলেজে তিন ধরনের প্রশিক্ষণ দেয়

  • বিষয় গুলি হল
  • প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষার প্রস্তুতি (Preparation for Entry to Services)  
  • স্পোকেন ইংরেজি (Basic Proficiency in Communicative English)
  • কম্পিউটর ট্রেনিং (Basic Computer Training)
  • এই প্রশিক্ষণ সম্পূর্ণ হওয়ার পর একটি মূল্যায়ন করা হবে  সকল সফল ছাত্র ছাত্রীকে সার্টিফিকেট দেওয়া হবে যা কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় দ্বারা অনুমোদিত
  • প্রশিক্ষণের সময়, সকাল ৯টা ১৫ মিনিট থেকে - ১০ টা ৪৫ মিনিট ও  বিকেল ৪ টা ৩০ মিনিট থেকে - ৬ টা ০০ মিনিট
  • বছরে দুইবার এই প্রশিক্ষণের জন্যে ভর্ত্তি হওয়া  যায়  - জুন/জুলাই মাসে এবং নভেম্বর/ডিসেম্বর মাসে
  • একজন এক বা একাধিক বিষয়ে প্রশিক্ষণ নিতে পারে
  • আরো জানতে হলে অধ্যাপক তিলক চট্টোপাধ্যায় ও অধ্যাপক কল্যান চট্টোপাধ্যায় এর সাথে যোগাযোগ করতে বলা হচ্ছে

 

অর্থশাস্ত্র নিলে ১২টি কম্বিনেসন পড়বার সুযোগ থাকবে,  ,  ,  

 

ক্লাশে উপস্থিতি সংক্রান্ত

বিশ্ববিদ্যালয়ের নিয়ম,

) কোন ছাত্র বা ছাত্রী প্রতি ১০০ টি ক্লাশের মধ্যে অন্তত ৬০ টি ক্লাশে উপস্থিত না থাকলে বিশ্ববিদ্যালয়ের

নিয়ম অনুসারে বিশ্ববিদ্যালয় পরীক্ষা দিতে পারবে না এবং পরের বছর তাকে পুনরায় ভর্ত্তি হতে হবে ।

) কোন ছাত্র বা ছাত্রী  প্রতি ১০০ টি ক্লাশের মধ্যে অন্তত ৬০ এর অধিক কিন্তু ৭৫ এর কম ক্লাশে উপস্থিত থাকে

তাহলে বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুমতি  ছাড়া সেই ছাত্র বা ছাত্রি বিশ্ববিদ্যালয় পরীক্ষা দিতে পারবে না

কলেজের নিয়ম,

) প্রত্যেক বিষয়ে বা বিভাগে প্রতি মাসে একটি করে আভ্যন্তরীণ মূল্যায়ন করা হবেকলেজের সকল ছাত্র ছাত্রীকে এই সকল  পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে হবে এবং নূন্যতম ৪০% নম্বর পেতে হবে

) প্রত্যেক বিভাগ প্রতি মাসে একটি করে মাসিক উপস্থিতি রিপোর্ট জমা দেবে এবং কলেজ ছাত্র ছাত্রীদের ক্লাশে উপস্থিতির হার অভিভাবকদের জানানো  হবে,

গুরুত্বপূর্ণ  সময়সীমা সংক্রান্ত

  • বিশ্ববিদ্যালয়ের নির্দেশ অনুসারে প্রথম বর্ষের ছাত্র ছাত্রীদের ভর্ত্তির  শেষ তারিখ                  - ৮ই গষ্ট
  • বিষয় / বিভাগ পরিবর্তনের আবেদনের শেষ তারিখ                                                                 - ২৪শে গষ্ট
  • প্রথম বর্ষের ছাত্র ছাত্রীদের বিশ্ববিদ্যালয় রেজিষ্ট্রেশনের শেষ তারিখ লেট ফী ব্যতীত            - ১০ই সেপ্টেম্বর
  • প্রথম বর্ষের ছাত্র ছাত্রীদের বিশ্ববিদ্যালয় রেজিষ্ট্রেশনের শেষ তারিখ লেট ফী সহ                  - ২১শে সেপ্টেম্বর
  • প্রথম বর্ষের ছাত্র ছাত্রীদের বিশ্ববিদ্যালয় রেজিষ্ট্রেশন চেক লিস্ট করার সময়                        - , ১০, ১১, ১২ ১৩ ই ডিসেম্বর
  • দ্বিতীয় বর্ষের প্রভিশনাল ভর্ত্তির শেষ তারিখ                              - প্রথম বর্ষের বা পার্ট ১ পরীক্ষা শেষ হওয়ার সাত দিনের মধ্যে
  • তৃতীয় বর্ষের প্রভিশনাল  ভর্ত্তির  শেষ তারিখ                           - দ্বিতীয় বর্ষের বা পার্ট ২ পরীক্ষা শেষ হওয়ার সাত দিনের মধ্যে
  • দ্বিতীয় বর্ষের ফাইনাল ভর্ত্তিরশেষ তারিখ)                            - প্রথম বর্ষের বা পার্ট পরীক্ষার ফল প্রকাশের দিনের মধ্যে
  • তৃতীয়  বর্ষের ফাইনাল  ভর্ত্তির  (শেষ তারিখ )                           - দ্বিতীয় বর্ষের বর্ষের বা পার্ট পরীক্ষার ফল প্রকাশের দিনের মধ্যে

বি দ্রঃ – উল্লিখিত সময়সীমা লঙ্ঘন করলে যে ক্ষতি ছাত্র ছাত্রীর হতে পারে তার জন্যে কর্ত্তৃপক্ষ কোন ভাবে দায়ী থাকবে না ।

 

স্টাইপেন্ড সংক্রান্ত

  • সরকারের কাছ স্টাইপেন্ড পাওয়া ছাত্রের নিজস্ব দায়িত্ব ।  
  • এই ক্ষেত্রে কলেজের ভূমিকা নিতান্তই সহায়ক মাত্র ।
    • ব্যাঙ্ক এ্যাকাউন্ট খুলতে সাহায্য করা
    • নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে পূরন করা ফর্ম আলিপুর স্টাইপেন্ড অফিসে জমা দিতে সাহায্য করা
  • ছাত্র ছাত্রীকে নিজ দায়িত্বে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে ব্যাঙ্ক এ্যাকাউন্ট খুলতে হবে
  • ছাত্র ছাত্রীকে নিজ দায়িত্বে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে স্টাইপেন্ড ফর্ম পূরণ করতে হবে ও জমা দিতে হবে
  • প্রথম বর্ষের ছাত্র ছাত্রীদের স্টাইপেন্ড সংক্রান্ত ফর্ম ও ব্যাঙ্ক এ্যকাউন্ট খোলার ফর্ম সংগ্রহ  করার তারিখ 
      • ২৯, ৩০ ও ৩১ আগষ্ট 
  • প্রথম বর্ষের ছাত্র ছাত্রীদের ব্যাঙ্ক এ্যকাউন্ট  নম্বর  সহ  স্টাইপেন্ড  ফর্ম জমা দেওয়ার তারিখ                       
      • ২৫, ২৬ ও ২৭ ই সেপ্টেম্বর
  • দ্বিতীয় তৃতীয় বর্ষের ছাত্র ছাত্রীদের স্টাইপেন্ড  ফর্ম জমা দেওয়ার তারিখ                                   
      • ৩০শে নভেম্বর - ৬ ই ডিসেম্বর
  • নির্দিষ্ট সময়সীমা পেরিয়ে যাওয়ার পর স্টাইপেন্ড  ফর্ম জমা  নেওয়া হবে না ।
  • সংশ্লিষ্ট ব্যাঙ্কের নিয়ম মেনে চলার জন্যে সকল ছাত্র ছাত্রীকে অনুরোধ করা  হচ্ছেঅন্যথায় ব্যঙ্ক কর্ত্তৃপক্ষের সিধান্ত কলেজ কর্ত্তৃপক্ষ তা মেনে নেবে
©2012 Bankim Sardar College. Poweblue by: Hindustan Technology Solutions